Skip to main content

প্রকাশ হলো দেহলিজের তৃতীয় সংখ্যা ।

দেহলিজ - তৃতীয় সংখ্যা 



প্রকাশ হলো দেহলিজের তৃতীয় সংখ্যা ।  নীচে ক্লিক করুন !!

https://dehlij3.blogspot.com/




অথবা 


https://dehlij.blogspot.com/



প্রকাশ হল দেহ্‌লিজ । দিল্লি বাংলা সাহিত্য থেকে তার নিজস্ব বাংলা ওয়েব ম্যাগাজিন । দিল্লির বিভিন্ন সময় , বয়স, এলাকার কবি, গল্পকার, নাট্যকারদের লেখা নিয়ে সাজানো হয়েছে দেহ্‌লিজ । দ্বিতীয় সংখ্যার শেষে আমরা একটা সংকটের ভিতর দিয়ে গেছি । একটা সময় অনেকেই ধরে নিয়েছিলেন, তৃতীয় সংখ্যার আর বের হবে না । যা হোক, ভুল প্রমাণিত করে,  দিল্লি হাটে দেহ্‌লিজ-৩ প্রকাশিত হলো পত্রিকারই লেখক ও কবিদের মাঝখানে । দেহ্‌লিজ, সমস্ত লেখককে অভিনন্দন আর পাঠকদেরকে স্বাগতম জানাচ্ছে ।  দিল্লির বাংলা সাহিত্য কমিউনিটি ডেভেলপমেন্টের সঙ্গে যারা যুক্ত আছেন, তাদেরকে আমার হৃদয়ের অন্দরমহলের ধন্যবাদ জ্ঞাপন করছি   । ধন্যবাদ দিল্লি ।

বন্ধুরা, ওয়েবে যারা রয়েছেন, তাদের কাছে আবেদন, তাঁরা সাইটে আসুন বুকমার্ক করুন । কবিতা, গল্প পাঠ করুন , মতামত জানান, কথা হোক । ফোনে, সোশ্যাল মিডিয়ায়, সরাসরি যেখানে যেরকম সুবিধা । মেইন পেজে কন্টাক্ট দেওয়া আছে । 

দেহ্‌লিজের লেখক সূচী এইরকম:


সম্পাদকীয়
--------
দেহ্‌লিজ তৃতীয় সংখ্যা

শাহি দিল্লির দরবার
-----------
তড়িৎ মিত্র
প্রশান্ত বারিক
সুমন মান্না
প্রসেনজিৎ দাশগুপ্ত
কৃষ্ণা মিশ্র ভট্টাচার্য
ঔরশীষ ঘোষ
ইউনুস
ভাস্বতী গোস্বামী
অসিত কুমার চক্রবর্তী


YAMUNA BANK
-----------
Agni Roy
Pijushkanti Biswas
Monali Roy


সরাইরোহিলা উবাচ
------------
মণিরত্ন মুখোপাধ্যায়
সোমা বিশ্বাস
কবিতা বন্দ্যোপাধ্যায়
রমা জোয়ারদার

हिंदी कविता
--------
फ़रोग़,उल,इस्लाम


গদ্যে মুক্তধারা
---------
গৌতম দাস
দিলীপ ফৌজদার

ইউভি দিল্লি এক্স
----------
নবীন পার্থ
Reetun Roy
মনীষা কর বাগচী
কৌশিক সেন

চিত্রপটে দিলবাহার
-----------
দেবাশিস ব্যানার্জী
শমিত দাশ


বিসাইড রিং রোড
------------
Aashisha Chakraborty
কল্যাণাশীষ মণ্ডল
প্রিয়দর্শী দত্ত


https://dehlij3.blogspot.com/





দেহলিজের পক্ষ থেকে
ধন্যবাদ
পীযূষকান্তি বিশ্বাস

https://dehlij3.blogspot.com/
https://dehlij.blogspot.com/


Comments

Popular posts from this blog

প্রকাশ হলো দেহলিজ -৬

দেহলিজ-৬ প্রকাশিত হলো   ক্লিক করুন | Click Here   বহু প্রতিক্ষার পর, ফির`সে দেহলিজ । প্রথমেই কৃতজ্ঞতা জানাই কবি ও লেখক বন্ধুদের । তারা ভরসা রেখেছেন, কঠিন সময়ে যোগাযোগ রেখেছেন, ফোনে কথা বলেছেন । এই করোনা কালে, বেঁচে থাকাই হলো একটা গল্প, লড়াই করে যাওয়াই একটা কবিতা । দিল্লি এনসিআর এর কবি বন্ধুরা আমার সঙ্গে ছিলেন, তারা আমার হয়ে দেহলিজের লেখা নিয়েছেন, নিজেরা এডিট করেছেন । দিল্লির এই রুক্ষতার আবহেও এতসুন্দর একটা সাহিত্য উপস্থাপনা আমাদের দিয়েছেন, আমি সেই দেহলিজ সহযোগীদের কাছে কৃতজ্ঞতা জানাই । শুধু দিল্লি নয়, মেদিনীপুর, শিলিগুড়ি, বহরমপুর, হাওড়া, বাঁশদ্রোনী থেকেও আমাদের সঙ্গে থেকেছেন, ধন্যবাদ জানাই সেইসব লেখক ও কবিদের ।    এই সংখ্যায় কিছু নতুন টেমপ্লেট নেওয়া হলো । ডেস্কটপ ও মোবাইল থিম আলাদা করা হয়েছে । নতুন করে সাজানো হয়েছে মেনু লিংক । অটোমেশন করা হয়েছে । সংখ্যায় বৈচিত্র নিয়ে কিছু কাজ করা হলো । কবিতা ছাড়াও রাখা হলো মুক্তগদ্য, অনূদিত নাটক, বই রিভিউ, স্মৃতিচারনা ও ছোট হল্প । আর একটি বিষয় নিয়ে এই প্রথম কাজ করা হলো সেটা হলো - কবিতা ও চিত্রকলার মিলনসংহার । ৬ জন কবির কবিতাকে উডকাট ব্লাক এন্ড হো

চৈতালি দাস

নীপবিথি চৈতালি দাস প্রতিদিনের মত আজও ঠিক সন্ধে সাতটায় শুভ্রর ফোনটা এলো । গত দু - মাস হল এই ফোনটার অপেক্ষায় থাকে গার্গী ‌।সাতটা বাজার আগে থেকেই মোবাইলটা নাড়া চাড়া করে । কখন ও কখন ও আবার  মনে হয় মোবাইল এর রিংটোন টা মিউট করা আছে হয়তো  ,শুভ্রর ফোন বেজে গেছে শুনতে পায়নি । তারপর হাতের মুঠোয় ধরা মোবাইলটা ভালো করে দেখে বোঝে যে এসবই তার মনের ভুল । মোবাইল এর সাউণ্ড একেবারে ম‍্যক্সিমামে  দেওয়া  আছে। --হ‍্যাঁ , হ‍্যালো শুভ্র বলো বলো । -- কাল তো  তোমাদের ওদিকে ভয়ানক ঝড় - বৃষ্টি  হয়েছে দেখলাম । তোমরা ঠিক আছো তো? সকালে নিউজে খবরটা দেখতে দেখতে ভাবলাম অফিসে পৌঁছেই  তোমাকে একটা ফোন করবো কিন্তু অফিসে ঢোকার পর থেকে একটার পর একটা এমন কাজে ফেঁসে গেছি যে ফোন করতে পারিনি, এই জাস্ট পাঁচ মিনিট আগে মিটিং শেষ করে নীচে নেমে সিগারেটটা ধরিয়ে তোমাকে ফোন টা লাগালাম। -হ‍্যাঁ শুভ্র কাল ঝড়ের এই তাণ্ডবে সারা কলকাতা তছনছ হয়ে গেছে , টিভি তে বলছিল ঝড়টা নাকি প্রায় একশো কিলোমিটার বেগে চলেছিল। আমার তো ভয় করছিলো যে সত্তর বছরের পুরোনো এই বাড়ি না ভেঙে পড়ে ‌। পুরো বাড়িটা কাঁপছিল ঝড়ের দাপটে । আমাদের বাগানে  একটা  আমগাছ ও পড়েছে ,তবে

আসছে দেহলিজের সংখ্যা - ৬

 প্রকাশ পাচ্ছে দেহলিজ-৬ করোনাকালের শুরুতে প্রকাশ পেয়েছিলো, দেহলিজ-৫ ; তেমন উচ্চবাচ্য হয়নি, ইচ্ছে করেই করা হয়নি, মানুষের কাছে বেঁচে থাকাই ছিলো একটা কবিতা । লকডাউন শুরু হলো, মানুষ আটকা পড়লো ঘরে । শুরু হলো ঘরে বসে লাইভ টেলিকাস্ট । দেহলিজে - নতুন গ্রুপ একটিভিটি বেড়ে উঠেছে । তার একটা খসড়া এই রকমঃ  প্রিয় কবি বন্ধুগণ   আজকের এই বিশেষ অবসরে, আমার কিছু যত্নে লালিত প্রস্তাব রাখার অভিপ্রায়ে , এই পোস্টের অবতারণা  । দেহলিজ পত্রিকার সম্পর্কে এই  বিষয়টি একটা অভিনব ও যুগান্তকারী বলেও  মনে হয় আমার । দিল্লির যানজট, লকড ডাউন,  অফিস ব্যস্ততা, বাংলা ভূখণ্ডের দূরত্বে ভৌগলিক অবস্থান , উৎসাহী কবির স্বল্পতা বাংলা চর্চার ক্ষেত্রে একটা চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিয়েছে । তদুপরি ভাষার বিবিধতা , জাঠ হরিয়ানভি ঠাট,  পাঞ্জাবী কালচার আগ্রাসন করে নিয়েছে অনেক কিছু । বর্তমান দেশব্যাবস্থা, রাজনৈতিক সমীকরণ সাহিত্য দিল্লি-বক্ষে সাহিত্য প্রয়াসের প্রতিকুল সততই । এই রকম চ্যালেঞ্জ নেওয়াটাও একটি সাহসী পদক্ষেপ , আমাদের একত্রিত প্রয়াসে  আমরা বিভিন্ন সাহিত্য আড্ডা ও অনলাইন পত্রিকার মাধ্যমে তবুও তুলে ধরেছি । দেহলিজের এই অগ্রগতি আমাদের একটা আশ